Announcements ভাষা

সনাতন বাংলার জনগণ বাংলা এবং অন্যান্য ভাষায় কথা বলে যার সঙ্গে বাংলা ভাষার অভূতপূর্ব মিল রয়েছে। সকল ভাষাই পূর্ব ভারতীয় উপমহাদেশের ইন্দো-আর্য ভাষার অন্তর্ভুক্ত এবং মাগধী প্রাকৃত ও সংস্কৃত ভাষা থেকে উন্মেষিত। ভাষা মূলত: এই অঞ্চলের উভয় দেশের মানুষকে একটি অভিন্ন বন্ধনে আবদ্ধ করেছে।

ধারণা করা হয় যে “বাঙলা“  শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে খ্রিষ্টপূর্ব ১০০০ অব্দে ব্যাঙ নামক দ্রাবিড় ভাষাভাষী  উপজাতি থেকে যারা বৃহত্তর বাংলার ভারত এবং বর্তমান বাংলাদেশ উভয় এলাকায় বসবাস করত। ব্যবহৃত ভাষার মধ্যে বাংলা বহুল ব্যবহৃত একটি ভাষা, ভাষাভাষী জনসংখ্যার ভিত্তিতে প্রায় ২২০ মিলিয়ন বাঙালি এবং আরও অন্যান্য প্রায় ২৫০ মিলিয়ন ব্যাবহারকারী নিয়ে বাংলা বিশ্বে সপ্তম । বাংলাদেশ ও ভারত উভয় দেশের জাতীয় সঙ্গীতই রচনা করেন নোবেল বিজয়ী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। বাংলার উৎপত্তি ও ক্রমবিকাশে বাংলাদেশ ও ভারত-এ দুই দেশেরই মনীষীদের অবদান রয়েছে, যেমন- ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, রাজা রামমোহন রায় এবং শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, যারা সকলেই বৃহত্তর অবিভিক্ত বাংলার অধিবাসী ছিলেন।

সনাতন বাংলা সাহিত্যের প্রাপ্য নিদর্শনগুলো প্রায় শতবর্ষী পুরাতন। মধ্যযুগে বাংলা সাহিত্যের বিকাশ মূলত বৃহত্তর পূর্ব বাংলার মুসলিম শাসকদের হাত ধরেই হয়েছে। এ সময়ের অবিভক্ত বাংলার কয়েকজন প্রথিতযশা কবি হচেছন চণ্ডীদাস , দৌলত কাজী এবং আলাওল ।

****