Development Cooperation উন্নয়ন সহযোগিতা

উন্নয়ন সহযোগিতা

উন্নয়ন সহযোগিতা:

উন্নয়ন সহযোগিতা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে বিকশিত হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশের সাথে ভারতের উন্নয়নঅংশীদারিত্ব আকারে ও ব্যাপ্তিতে বৃদ্ধি পেয়েছে। আট বিলিয়ন ডলারের বাস্তবায়নাধীন তিনটি ঋণচুক্তির মধ্যে দিয়ে, বাংলাদেশ ভারতের বৃহত্তম উন্নয়ন অংশীদার হয়ে উঠেছে। বর্তমান উন্নয়ন সহযোগিতার বিস্তৃত চিত্র নিম্নরূপ: 

ঋণচুক্তিসমূহ:

২০১০ সালে প্রথম ঋণচুক্তিতে বাংলাদেশকে অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য (প্রধানত, রেলপথ ও গণপরিবহণ খাতে) ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণসুবিধা বর্ধিতকরা হয়। ভারত সরকার ২০১২ সালের জুন মাসে ক্রমান্নয়ে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অনুদান সহায়তা হিসাবে ঋণ দিয়েছে এবং এর আয়তনআরও ৮৬২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পর্যন্ত বর্ধিত করেছে । 

২০১৫ সালের জুন মাসে ভারতের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশে সফরকালে ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের দ্বিতীয় ঋণচুক্তি ঘোষণা করা হয়। দ্বিতীয়ঋণচুক্তির অধীনে প্রধানত বিদ্যুৎ, রেলপথ, সড়ক ও পরিবহণ, স্বাস্থ্য ও কারিগরি শিক্ষা ইত্যাদি ক্ষেত্রে ১৬টি প্রকল্প চিহ্নিত করা হয়েছে এবং এগুলো বাস্তবায়নের বিভিন্ন পর্যায়েরয়েছে। 

২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে ৪.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের তৃতীয় ঋণচুক্তি ঘোষণা করা হয়। তৃতীয় ঋণচুক্তির অধীনে বিদ্যুৎ, রেলপথ, সড়ক ও পরিবহণ, স্বাস্থ্য ও কারিগরি শিক্ষা, আইটিসি, নৌ ও সৌরভিত্তিক যোগাযোগ ইত্যাদি ক্ষেত্রে ১৫টি প্রকল্প চিহ্নিত করা হয়েছে এবং এগুলো অনুমোদন ও বাস্তবায়নের বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে।

 
উন্নয়ন সহযোগিতা