রংপুর রামকৃষ্ণ মিশন ও আশ্রমে স্বামী বিবেকানন্দ ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রীমতী রীভা গাঙ্গুলি দাশের বক্তব্য Statements & Speeches

রংপুর রামকৃষ্ণ মিশন ও আশ্রমে স্বামী বিবেকানন্দ ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রীমতী রীভা গাঙ্গুলি দাশের বক্তব্য

ভারতীয় হাই কমিশন

ঢাকা

রংপুর রামকৃষ্ণ মিশন ও আশ্রমে স্বামী বিবেকানন্দ ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রীমতী রীভা গাঙ্গুলি দাশের বক্তব্য

(২৮ নভেম্বর ২০১৯)

 

স্বামী সন্ততানন্দ, সম্পাদক, রামকৃষ্ণ মিশন,

শ্রী দেবদাস ভট্টাচার্য, ডিআইজি, রংপুর,

অ্যাডভোকেট দীপক কুমার সাহা, সহসভাপতি, রামকৃষ্ণ মিশন,

প্রিয় ভক্তগণ,

ভদ্রমহিলা ও মহোদয়গণ,

 

. রংপুর রামকৃষ্ণ মিশন ও আশ্রমে আসতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত এবং স্বামী বিবেকানন্দ ভবন উদ্বোধন করা আমার জন্য সৌভাগ্যের বিষয়।

. রামকৃষ্ণ মিশন সারা বিশ্বে মানবিক, আধ্যাত্মিক, শিক্ষা, সামাজিক-সাংস্কৃতিক, ত্রাণ ও পুনর্বাসন এবং চিকিৎসা সেবাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করে চলেছে। রামকৃষ্ণ মিশন সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের শান্তি এবং উন্নয়নে সত্যিকার অর্থে বিরাট ভূমিকা রেখেছে।

. ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে যে সম্পর্ক, তার মূলে রয়েছে আমাদের অভিন্ন ইতিহাস এবং সংস্কৃতি। আজকে আমাদের সম্পর্ক বহুমুখী। বাণিজ্য-বিনিয়োগ, নিরাপত্তা ও সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, যোগাযোগ, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, তথ্যপ্রযুক্তি, মহাকাশ, নিউক্লিয়ার বিজ্ঞান, উন্নয়ন প্রকল্প, সংস্কৃতি এবং মানুষে-মানুষে সংযোগসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রেই আমাদের সহযোগিতার সম্পর্ক রয়েছে।প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমাদের সম্পর্ক একটি সোনালী অধ্যায়ে প্রবেশ করেছে।

. আমি আনন্দের সাথে বলছি যে, বাংলাদেশ আমাদের সবচেয়ে বড় উন্নয়ন সহযোগী দেশ। গত কয়েক বছরে আমরা বাংলাদেশের বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক এবং অবকাঠামো প্রকল্পের জন্য আট বিলিয়ন ডলারের ঋণচুক্তি করেছি। ঋণচুক্তি প্রকল্পগুলি ছাড়াও, ভারত সরকার শিক্ষা, স্বাস্থ্য, জল, সংস্কৃতি, নগর উন্নয়ন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, সমাজকল্যাণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে বাংলাদেশে বেশ কয়েকটি উচ্চ প্রভাবসম্পন্ন কমিউনিটি উন্নয়ন প্রকল্পে সহায়তা করে আসছে। এ বছরের ৫ অক্টোবর, আমাদের দুই প্রধানমন্ত্রী ঢাকার রামকৃষ্ণ মিশনে বিবেকানন্দ ভবনের উদ্বোধন করেছিলেন।

. স্বামী বিবেকানন্দ সেবা ও ত্যাগের আদর্শের উপর জোর দিয়েছিলেন। স্বামী বিবেকানন্দের চিন্তা ও আদর্শ আজকে আমাদের অনুপ্রাণিত করে ও মনে শক্তি জোগায়। তাঁর কাছ থেকেই আমরা একটি শক্তিশালী, প্রাণবন্ত ও বিশুদ্ধ সমাজ গঠনের অনুপ্রেরণা পাই।

. রংপুর রামকৃষ্ণ মিশনেও স্বামী বিবেকানন্দ ভবন নির্মাণে সহায়তা করতে পেরে আমরা আনন্দিত। এটি একটি তিন তলা ভবন এবং এখানে একটি কম্পিউটার সেন্টার, একটি দাতব্য মেডিকেল সেন্টার, কোচিং সেন্টার এবং ছাত্রাবাস রয়েছে। ভারত সরকার সহায়তায় এক কোটি তেইশ লাখ টাকা ব্যয়ে এই ভবনটি নির্মিত হয়েছে। আমি আশা করি, রংপুর রামকৃষ্ণ মিশনে নতুন ভবনের উদ্বোধন শিক্ষার্থীদের দক্ষতা এবং প্রতিভা অর্জনে সহায়তা করবে এবং দাতব্য মেডিকেল সেন্টারে রোগীরা চিকিৎসাসেবা পাবে। রামকৃষ্ণ মিশনের মতো যে সব সংস্থাগুলি সমাজ কল্যাণমূলক কাজ করছে, আমরা সবসময় তাদের সাহায্য করব।

 

সবাইকে ধন্যবাদ।

 

****